এবার উপড়ে নষ্ট করে দেয়া হলো সনে রঞ্জন ত্রিপুরার রোপন করা সুপারি গাছের চারাগুলো

0
240

গুইমারা প্রতিনিধি ।। সিন্দুকছড়ির পঙ্খীমুড়ায় সেনাবাহিনী কর্তৃক গত ১২ জুন ২০২১ রাতের আঁধারে সনে রঞ্জন ত্রিপুরার নির্মিত বাড়ি ভেঙে দিয়ে জায়গাটি বেদখলের পর এবার তার রোপন করা সুপারি গাছের চারাগুলো উপড়ে নষ্ট করে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, আজ বৃহস্পতিবার (২৪ জুন ২০২১) সকালে সনে রঞ্জন ত্রিপুরার পরিবারের লোকজন তাদের জায়গায় কিছু সুপারি গাছের চারা রোপন করেন। পরে সেনা সদস্যরা সেগুলো উপড়ে ফেলে দেয়। এ সময় সনে রঞ্জন ত্রিপুরার স্ত্রী এর প্রতিবাদ করলে সেনারা গুইমারা থানা পুলিশকে খবর দেয়। এরপর গুইমারা থানার ওসিসহ একদল পুলিশ সদস্য সেখানে গিয়ে উপস্থিত হয় এবং সেনাবাহিনীর করা অভিযোগ সম্পর্কে সনে রঞ্জন ত্রিপুরার স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এতে সনে রঞ্জন ত্রিপুরার স্ত্রী যথাযথ জবাব দিয়ে সেনা সদস্যরা তাদের রোপন করা সুপারি গাছের চারাগুলো উপড়ে ফেলার বিষয়ে পুলিশকে জানান এবং সরজমিনে উপড়ে দেয়া চারাগুলো দেখে যেতে ওসিকে অনুরোধ করেন। কিন্তু ওসিকে উক্ত জায়গায় যেতে দেয়া হয়নি বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, গত ১২ জুন রাত সাড়ে ১০টার দিকে মহালছড়ি জোনের একদল সেনা সদস্য সনে রঞ্জন ত্রিপুরার নির্মিত বাড়িটি ভেঙে দিয়ে বাড়ির সকল সরঞ্জাম গাড়িতে করে তুলে নিয়ে যায়। এর পরদিন (১৩ জুন) তড়িঘড়ি করে সেখানে একটি টিনের ঘর তৈরি করে ‌‘কমিউনিটি ক্লিনিক’ নাম দিয়ে সনে রঞ্জন ত্রিপুরার ভিটামাটিসহ ভোগদখলীয় জায়গাটি বেদখল করে সেনাবাহিনীর সদস্যরা অবস্থান করতে শুরু করে।

এর বিরুদ্ধে ব্যাপক প্রতিবাদ-বিক্ষোভ ও সনে রঞ্জন ত্রিপুরা প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে আবেদন জানালেও সেনাবাহিনীর সদস্যরা এখনো জায়গাটি বেদখলে রেখেছে।


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.