দীঘিনালায় তিন সংগঠনের সমাবেশ, বিতর্কিত পঞ্চদশ সংশোধনী বাতিলের দাবি

0
144

দীঘিনালা প্রতিনিধি ।। খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের আয়োজিত এক সমাবেশ থেকে সংবিধানের বিতর্কিত পঞ্চদশ সংশোধনী বাতিলের দাবি জানানো হয়েছে।

একই সাথে নতুন সংবিধান প্রণয়নের মাধ্যমে দেশের সকল জাতিসত্তার সাংবিধানিক স্বীকৃতি, পর্যটন-উন্নয়ন নামে ৫ তারা হোটেল-সড়ক নির্মাণ ও বাস্তুভিটা থেকে উচ্ছেদ বন্ধ করা ও পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশের জাতিসত্তাসমূহের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছেন বক্তারা।

আজ মঙ্গলবার (২৯ জুন ২০২১) বিকাল ৩টায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ইউপিডিএফ সংগঠক অনিক চাকমা, পিসিপির খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি সমর চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের খাগড়াছড়ি জেলা আহ্বায়ক এন্টি চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের দীঘিনালা উপজেলার সভাপতি রিটেন চাকমা প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ বহু জাতির রাষ্ট্র। দেশে বাঙালি জাতি ছাড়াও আরো ৪৫টির অধিক জাতিসত্তা বসবাস রয়েছে। তাদের রয়েছে নিজস্ব ভাষা, সংস্কৃতি, ঐতিহ্য ও সংগ্রামী ইতিহাস। কিন্তু সরকার ২০১১ সালের ৩০ জুন সংসদে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্টার জোরে সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী আইন পাস করে ন্যাক্কারজনকভাবে দেশে বসবাসরত জাতিসত্তাসমূহের ওপর উগ্র বাঙালি জাতীয়তা চাপিয়ে দিয়েছে। এর মাধ্যমে সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সমতলে বসবাসরত জাতিসত্তাসমূহের জাতিগত পরিচয় মুছে দেয়ার ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে।

বক্তারা কথিক উন্নয়ন ও পর্যটন স্থাপনের নামে ভূমি বেদখল ও জাতিসত্তাগুলোকে নিজ ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদের প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, সম্প্রতি গুইমারার সিন্দুকছড়ি ইউনিয়নের পংখীমুড়োতে সেনাবাহিনী কর্তৃক সনে রঞ্জন ত্রিপুরার নির্মিত বাড়ি ভেঙে দিয়ে তার ভোগদখলীয় জায়গাটি বেদখল করা হয়েছে। শুধু সিন্দুকছড়ি নয়, এভাবে সাজেক, চিম্বুকপাহাড়সহ বেশ কিছু এলাকায় পর্যটন, সেনা ক্যাম্প স্থাপন ও কথিত উন্নয়ন প্রকল্পের নামে নামে হাজার হাজার একর জায়গা বেদখল করা হয়েছে এবং এ প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে।

বক্তারা সরকারের এমন জাতিগত নিপীড়ন-উচ্ছেদের বিরুদ্ধে পাহাড় ও সমতলে বসবাসরত সকল জাতিসত্তার জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.