নান্যাচরে মুন্সী আব্দুর রউফ স্মৃতিসৌধ এলাকায় নব্যমুখোশ সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ার, এলাকাবাসীর আতঙ্ক

0
1

নান্যাচর প্রতিনিধি, সিএইচটি নিউজ
মঙ্গলবার, ১০ জানুয়ারি ২০২৩

সন্ত্রাসীরা দিন দুপুরে মুন্সী আব্দুর রউফ’র সমাধি স্মৃতিসৌধ এলাকা থেকে ব্রাশফায়ার করে আতঙ্ক সৃষ্টি করে

রাঙামাটির নান্যাচর উপজেলার বুড়িঘাট ইউনিয়নের কমতুলি গ্রামের পাশে অবস্থিত বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ’র স্মৃতিসৌধ থেকে সেনা মদদপুষ্ট নব্যমুখোশ সন্ত্রাসীরা অতর্কিত ফাঁকা ব্রাশফায়ার করার অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। দিন দুপুরে সন্ত্রাসীদের এমন ব্রাশফায়ারের ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে বলে জানা গেছে।

আজ মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি ২০২৩) বিকালে এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, আজ বিকাল আনুমানিক সাড়ে ৪টার সময় রাঙামাটির শুভলঙ বাজার থেকে উত্তরণ চাকমা, জাগরন চাকমা ও সোনামুনি চাকমার নেতৃত্বে ৯ জনের একটি সশস্ত্র দল সাদা রংয়ের ৩টি স্পীড বোট যোগে এসে মুন্সী আব্দুর রউফ-এর স্মৃতিসৌধে অবস্থান নেয়। এ সময় সন্ত্রাসীরা যাত্রীবাহী একটি ইঞ্জিচালিত বোটকে লক্ষ্য করে ৮/১০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করার অভিযোগ করেছেন ঐ বোটে থাকা ভুক্তভোগীরা। এতে বোটে থাকা লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

উল্লেখ্য, মুন্সি আব্দুর রউফ-এর স্মৃতিসৌধের এক কিলোমিটারের মধ্যে রয়েছে খারিক্ষং আর্মি ক্যাম্প। জায়গাটি চেঙ্গি নদীর মাঝপথে হওয়ায় বিভিন্ন স্থান থেকে নৌপথে প্রতিনিয়ত মানুষ যাতায়াত করে থাকে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পর্যটকরাও মুন্সি আব্দুর রউফ-এর স্মৃতিসৌধে বেড়াতে আসেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই বোটের মালিক বলেন, এটি মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদ মুন্সী আব্দুর রউফের পবিত্র সমাধি। এমন পবিত্র জায়গা থেকে দিনে দপুরে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের দিনে এমন গুরিবর্ষণের ঘটনা বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফকে অপমান করার সামিল। এই সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সরকার-প্রশাসনের অতিদ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া উচিত।

এদিকে, গুলি বর্ষণের পর সন্ত্রাসী দলটি খারিক্ষং আর্মি ক্যাম্পের পাশে গিয়ে কিছু সময় অবস্থান করার পর পূনরায় শুভলঙের দিকে অগ্রসর হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক খারিক্ষং এলাকার এক মুরুব্বি বলেন, সন্ত্রাসীরা খারিক্ষ্যং আর্মি ক্যাম্পের পাশে সশস্ত্রভাবে অবস্থান করলেও আর্মিরা তাদের কোন কিছুই করেনি। এমন পরিস্থিতির কারণে এলাকার জনগণ আতঙ্কে রয়েছেন বলে তিনি জানান।


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।


সিএইচটি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.