মানিকছড়িতে “মগপার্টি” নামে একটি সশস্ত্র গোষ্ঠির তৎপরতা শুরুর অভিযোগ

0
11

মানিকছড়ি প্রতিনিধি, সিএইচটি নিউজ
শুক্রবার, ২০ জানুয়ারি ২০২৩

খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে কথিত “মগপার্টি” নামে নতুন করে একটি সশস্ত্র গোষ্ঠির তৎপরতার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি ২০২৩) বিকাল থেকে তাদের তৎপরতা লক্ষ্য করা যায় বলে স্থানীয়রা নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় এলাকাবাসীর দেয়া তথ্য মতে, গতকাল বিকাল আনুমানিক সাড়ে ৪টার সময় মানিকছড়ির মুনাধন পাড়া নামক স্থানে মগপার্টি পরিচয় দিয়ে ৬ জনের একটি সশস্ত্র দল দক্ষিণ হাফছড়ি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে অবস্থান নিয়ে ওই এলাকার জীপ গাড়ির চালক-হেলপার ও মোটর সাইকেল চালকদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে এবং আতঙ্ক সৃষ্টি করতে ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। এ সময় কয়েকজনকে মারধর করার কথাও জানান স্থানীয়রা। এরপর রাত ৮টার সময় সন্ত্রাসী দলটি মানিকছড়ি সদরের চক্কিবিল পাড়ায় এসে আবারো তিন রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে বলে জানা গেছে। এর আগে দুপুরে এই সন্ত্রাসী দলটি গুইমারার সিন্দুকুছড়ি ইউনয়নের গড়িয়াছড়ি এলাকায় অবস্থান করেছিলো বলে একটি সূত্রে খবর পাওয়া গেছে।

এই সন্ত্রাসী দলটির নেতৃত্বে কংচাইঞো মারমা নামে এক ব্যক্তির নাম জানা গেছে। তার বাড়ি গুইমারার সিন্দুকছড়ি ইউনিয়নের গড়িয়াছড়ি গ্রামে। এছাড়া মানিকছড়ির তিনটহরী এলাকার রাঙাপানি গ্রামের মংহ্লাচিং মারমা, লক্ষ্মীছড়ির দুল্যাতলী ইউনিয়নের মঘাইছড়ি গ্রামের ক‍্যচিং মারমা ও মানিকছড়ি সদর ইউনিয়নের চক্কিবিল গ্রামের অংগ‍্যজাই মারমাসহ আরো বেশ কয়েকজন জড়িত থাকার তথ্য জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

সন্ত্রাসী দলটি “মগপার্টি”র নাম ব্যবহার করলেও যিনি নেতৃত্বে রয়েছেন তিনি (কংচাইঞো মারমা) এক সময় সেনাসৃষ্ট নব্যমুখোশ বাহিনীতে কাজ করেছিলেন। পরে সেখান থেকে বের হয়ে এসে কিছু বখাটে যুবককে জড়ো করে সেনা গোয়েন্দা সংস্থার লোকজনের সহযোগিতায় গত বছর মানিকছড়ি এলাকা থেকে দুই বাঙালি ব্যবসায়ীকে অপহরণের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। পরে অপহরণের ঘটনা জানাজানি হওয়ায় কংচাইঞো মারমা বান্দরবানে পালিয়ে যায়। সেখানেই মগপার্টির একটি অংশের সাথে তার যোগাযোগ হয় বলে একটি সূত্রে জানা যায়।

বিশ্বস্ত আরেকটি সূত্র থেকে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, এই সন্ত্রাসী গ্রুপটিকে পৃষ্টপোষকতা দিচ্ছেন সিন্দুকছড়ি এলাকায় আওয়ামী লীগের কতিপয় নেতা। এর মধ্যে একজন জনপ্রতিনিধির সম্পৃক্ততা রয়েছে বলেও সূত্রটি জানিয়েছে। এতে সেনা গোয়েন্দা সংস্থার কতিপয় লোকজনও জড়িত থাকতে পারেন বলে সূত্রটির ধারণা।

এদিকে, মগপার্টির নামে এমন সশস্ত্র তৎপরতার খবরে এলাকার জনগণের মধ্যে ক্ষোভ ও আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। এই সন্ত্রাসীরা এলাকায় অরাজকতা সৃষ্টি করতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করে এলাকাবাসী অবিলম্বে এই সশস্ত্র গ্রুপটির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।


সিএইচটি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.